হ্রস্ব-দীর্ঘ ই-কারের ব্যবহার

Bengali E-Learning
Go to content

হ্রস্ব-দীর্ঘ ই-কারের ব্যবহার

E-Learning Bengali
‘কী’ এর অর্থগত প্রয়োগ কখনো কর্মবাচক সর্বনাম, কখনও প্রশ্নমূলক সর্বনাম, কখনও বিশেষণের বিশেষণ হিসেবে ব্যবহৃত হয়; যেমন- তুমি কী দেখেছ বলবে তো ! বা কী চমৎকার ! কী শোভা কী ছায়া গো !
 
বিকল্পাত্মক বিশেষণ হিসেবেও কী ব্যবহৃত হবে: কী রাম কী শ্যাম দুটোই সমান পাজি !
 
এই সঙ্গে সমজাতীয় ব্যকরণসূত্রে কীসে এবং কীসের দীর্ঘ ঈ-কার দিয়ে লেখা উচিত এবং তার প্রচলন বাড়ছে।
 
তুমি কী দেখেছ?- এর উত্তর হবে শ্রোতা যা দেখেছে নাম বা বর্ণনা।
 
এরকম আরও প্রয়োগ- কী চাই? কী ভেবেছ? ‘ওরে কী শুনেছিস ঘুমের ঘোরে’
 
কীভাবে, কীরকম, কী জন্য, কী রে, কী হে- এগুলিতেও কী হবে।
 
কিন্তু যে প্রশ্নের উত্তর ‘হ্যাঁ’ কিংবা না হবে, শুধু সে ক্ষেত্রে হ্রস্ব ই-কারযুক্ত কি ব্যবহৃত হবে। যেমন-
 
১. তুমি কি বইটা দেখেছ?- এর উত্তর হ্যাঁ কিংবা না।
 
২. চাই-কি, বই-কি, এমন-কিতেও হ্রস্ব ই-কার ব্যবহার হবে।
 
৩. একসাথে এমনকি হলে হ্রস্ব ই-কার হবে কিন্তু পৃথক হলে এমন কী হবে। শ্বাসাঘাত থাকলে কী হবে।
 
৪. এইভাবেই প্রভেদ করতে হবে ‘সে কী’ (বিষ্ময়সূচক উচ্ছ্বাস) আর ‘সেকি’ (সাধারণ হ্যাঁ-না প্রশ্নের কি)- এর মধ্যে:
 
‘ও এর মধ্যেই চলে গেছে? সে কী?’
 
সে কি কাজটা শেষ করেছে ?’ ‘সে কি আসে ?’




Website Developed by:
DR. BISHWAJIT BHATTACHARJEE
Assistant Prof. & Head
Dept. of Bengali
Karimganj College, Karimganj, Assam, India, 788710

+919101232388

bishwa941984@gmail.com
Important Links:
Back to content