কালিদাস রায় - Bengali E Learning

Bengali E-Learning
Go to content
কালিদাস রায় (২২ জুন, ১৮৮৯- ২৫ অক্টোবর, ১৯৭৫)
কালিদাস রায় রবীন্দ্রযুগের বিশিষ্ট রবীন্দ্রানুসারী কবি ও সমালোচক এবং আদর্শ শিক্ষক ছিলেন। পল্লীপ্রকৃতি ও পল্লীজীবনের কথাই তাঁর কবিতায় তিনি তুলে ধরেছেন। সমালোচক হিসেবে তিনি সাহিত্যে ও সংস্কৃতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন।
জন্ম ও শিক্ষাজীবন
কালিদাসের জন্ম ১৮৮৯ সালের ২২ জুন বর্ধমান জেলার কড়ুই গ্রামে। তাঁর পিতা যোগেন্দ্রনাথ রায় কাশিমবাজার রাজ এস্টেটের কর্মচারী ছিলেন। লোচনদাস ঠাকুর ছিলেন তাঁর পূর্বপুরুষ।  মুর্শিদাবাদ জেলার বহরমপুর শহরে কালিদাসের শৈশব জীবন কেটেছিল। কাশিমবাজার আশুতোষ চতুষ্পাঠীতে সংস্কৃত শেখেন এবং পড়ে কাশিমবাজার খাগড়া লন্ডন মিশন স্কুলে অধ্যয়ন করেন। বহরমপুর কৃষ্ণনাথ কলেজ থেকে ১৯১০ সালে বিএ পাস করেন। স্কটিশচার্চ কলেজে দর্শনশাস্ত্রে  এম এ অধ্যয়ন করেন কিন্তু পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার আগেই পেশাগত জীবনে প্রবেশ করেন।
কর্মজীবন
কালিদাস রায়ের কর্মজীবন শুরু হয় ১৯১৩ সালে রংপুরের উলিপুর মহারানী স্বর্ণময়ী হাইস্কুলের সশিক্ষক হিসেবে। সাতবছর এই স্কুলে তিনি প্রধান শিক্ষাকের দায়িত্ব পালন করেন। কিছুদিন তিনি দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বড়িশা হাইস্কুলে এগারো বছর শিক্ষাকতা করেন।পরে রায়বাহাদুর দীনেশচন্দ্র সেনের সহায়তায় কলকাতায় মিএ ইনস্টিটিউটশনের ভবানীপুর শাখায় প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন।এবং ১৯৫২ সালে অবসর গ্রহণের পূর্ব পর্যন্ত তিনি এ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।
সাহিত্যজীবন
রবীন্দ্র ভাবধারায় প্রভাবিত হয়ে তিনি কাব্যচর্চা শুরু করেন। কবিতা ছোটগল্প রম্য ইত্যাদি রচনা করেন। গ্রাম বাংলার রূপকল্প অংকনের প্রতি তার আগ্রহ। রোমান্টিকতা, প্রেম, পল্লীবাংলার শান্ত মাধুরী, সমাজ, ঐতিহ্যপ্রীতি এবং বৈষ্ণব প্রীতিরস তার কবিতার প্রধান বিষয়বস্তু। তাঁর 'ছাএধারা' কবিতা সুপরিচিত সবার কাছে। কুমারসম্ভব, শকুন্তলা, এবং মেঘদূত ইত্যাদি নাটক অনুবাদ করেন। তাঁর রচিত শিশুতোষ গল্পকাহিনী আছে। "বেতালভট্ট' ছদ্মনামে তার রম্যরচনাগুলি পাঠক সমাজে সমাদৃত হয়েছিল। ১৯০৬ সালে কবির প্রথম কবিতা "মেঘ ও ময়ূর' প্রকাশিত হয়। ১৯০৭ সালে তাঁর প্রথম কাব্য "কুন্দ' প্রকাশিত হয়, যা তিনি রবীন্দ্রনাথকে উৎসর্গ করেছিলেন। পল্লীপ্রকৃতি তাঁর কবিতায় ঘুরে ফিরে এসছে। তিনি তাঁর "স্মৃতিকথা'য় লিখেছেন,
"কেবল পল্লীর আবেষ্টনী ও পল্লীর নরনারীর আচরণই যথেষ্ট নয়, পল্লীর চোইন্যব্যথা, পাপ্তাপ, অনাচার, সরলতা সমস্তই আমার চিত্তকে বিচলিত করত। ...গ্রামের উৎসব পার্বণের মধ্যে আমি প্রাথমিক উপাদান-উপকরণ পেয়েছি।'
"পল্লীবধু' কবিতায় লিখেছেন,
উঠান ছাড়িয়া না উঠিতে রোদ ঘরের পৈঠা 'পরে,
কলস ভরিয়া জল লয়ে কেবা স্নান করে ফিরে ঘরে ?
কিংবা "আহরণ' কবিতায় লিখেছেন,
বাংলার দীঘি গভীর শীতল কবির স্বপ্নে ঘড়া
ছলছল কল জল চঞ্চল মাতৃমমতা ভরা।
ঙ্গব্যঙ্গের কবিতায়ও তিনি যথেষ্ঠ কৃতিত্ব দেখিয়েছেন, "নেশাখোরের অভিধান' কবিতায় তিনি লিখেছেন,
গাঁজা খেলে গেঁজেল' যদি, মদ খেলে হয় "মাতাল,
নস্যি নিলে "নেসেল' তবে, চা-খোরেরা "চাতাল'
প্রমথনাথ বিশী তাঁর কবিতার সমালোচনা করে লিখেছিলেন,
"কবিশেখর পাঠ্যপুস্তকের কবি নন, বাংলা কাব্যের একটি চিরন্তনী ধারাশ্রয়ী এ যুগের একজন Major বা প্রধান কবি, রবীন্দ্রপ্রভাব সত্বেও যিনি চিরকাল নিজ স্বাতন্ত্র্য রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছেন।'
রবীন্দ্রনাথ তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ পড়ে "কাঁচা হাতের লেখা' বলে সমালোচনা করেছিলেন কিন্তু পরে লিখেছিলেন,
"তোমার কবিতা বাংলাদেশের মাটির মতোই স্নিগ্ধ ও শ্যামল। বাংলাদেশের প্রতি গভীর ভালোবাসায় তোমার মনটি কানায় কানায় ভরা।'
কাব্যগ্রন্থ
কুন্দ (১৯০৭)
পর্ণপূট (১৯১৪ প্রথম খন্ড, ১৯২১দ্বিতীয় খন্ড)
ব্রজবেণু (১৯১৬) বল্লরী (১৯১৫)
ক্ষুদক্ষুঁড়া (১৯২২)
লাজাঞ্জলি (১৯২৪)
রসকদম্ব (১৯২৩)
হৈমন্তী (১৯৩৫)
বৈকালী (১৯৪০)
গাথাঞ্জলি (১৯৫৮)
পূর্ণাহুতি (১৯৬৮)
দিন ফুরানোর গান (১৯৮৪)
তথাগত (১৯৯৪)
প্রবন্ধ
পদাবলী সাহিত্য
প্রাচীন বঙ্গ সাহিত্য পরিচয়
প্রাচীন বঙ্গ সাহিত্য
সাহিত্য প্রসঙ্গ
শরৎ সাহিত্য
চনক সংহিতা
চালচিত্র
রঙ্গচিত্র
শিশু সাহিত্য
গাথাঞ্জলি (১৯৬১)
গাথাকাহিনী (১৯৬৪)
তৃণদল (১৯৭০)
গাথামঞ্জরী (১৯৭৪)
মনীষী বন্দনা (১৯৭৬)
গাথাবলী (১৯৭৮)
সম্মান গ্রহণ
সাহিত্যকর্মের জন্য কালিদাস রায় বহু সম্মানে ভূষিত হয়েছেন।রংপুর সাহিত্য পরিষদে ' কবি শেখর' উপাধি লাভ করেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে জগত্তারিণী স্বর্ণপদক ও সরোজিনী স্বর্ণপদক প্রদান করেন।বিশ্বভারতী দেশিকোত্তম উপাধি লাভ করেন।  আনন্দ পুরস্কার লাভ করেন। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানসূচক ডিলিট ডিগ্রি প্রদান করেন।
মৃত্যু
কালিদাস রায় ১৯৭৫ সালে ২৫ অক্টোবর কলকাতায় নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।
প্রবন্ধ: শতাব্দী নাথ
তথ্যসূত্র:
উইকিপিডিয়া
বাংলা সাহিত্যের সম্পূর্ণ ইতিবৃত্ত, ড. অসিত কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়
বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস, ড. দেবেশ কুমার আচার্য্য
(প্রকাশিত: ১৫.০৫.২০২১)
There are no reviews yet.
0
0
0
0
0

Website Developed by:
DR. BISHWAJIT BHATTACHARJEE
Assistant Prof. & Head
Dept. of Bengali
Karimganj College, Karimganj, Assam, India, 788710

+919101232388

bishwa941984@gmail.com
Important Links:
Back to content